গফরগাঁওয়ে বালুভর্তি লড়ির চাপায় দুই মহিলা নিহত,আহত এক

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে লড়ির নিচে চাপায় পড়ে দুই অটোরিকশার মহিলা যাত্রী নিহত হয়েছে। এবং অপর এক ব্যক্তি গুাংতর আহত হয়েছেন।
নিহতরা হলেন- উপজেলার সালটিয়া ইউনিয়নের পুখুরিয়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম রউফের স্ত্রী মাজেদা খাতুন (৫৫) ও চরআলগী ইউনিয়নের চরকামারিয়া ভাটিপাড়া গ্রামের মৃত মিয়া হোসেনর স্ত্রী বকুলা বেগম (৪৫)। ঘটনাটি শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার গফরগাঁও -ভালুকা আঞ্চলিক মহাসড়কে ধোপাঘাট নামক স্থানে ঘটে। দূর্ঘটনার পর লড়ির চালক পলাতক রয়েছে। খবর পেয়ে গফরগাঁও থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লড়িটি আটক করে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ১১টায় পুখুরিয়া গ্রামের মাজেদা খাতুন অটোরিকশা যোগে গ্রামের বাড়ি রাওনা যাচ্ছিলেন। অটোরিকশার যাত্রীরা ধোপাঘাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সামনে অটো থেকে নেমে ভাড়া পরিশোধে সময় পিছন থেকে একটি বালু বোঝাই লড়ি তাদের চাপায় দিলে ঘটনাস্থলে মাজেদা খাতুন নিহত হয়। এসময় অপর অটোরিকশার যাত্রী বকুলা বেগম (৪৫) গুরুতর আহত হয়। স্বজনরা উদ্ধার করে আশংকাজনক অবস্থায় পাশ্ববর্তী ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে সে মারা যায়। নিহত দু’জন মহিলাই স্বামীর বাড়ী থেকে বাবার বাড়ি রাওনায় বেড়াতে যাচ্ছিলেন। আহত রাওনা গ্রামের হেলাল খান (৪৫) গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। রাওনা ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুল আলম বলেন, অনাকাঙ্খিত ঘটনা। একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না।
গফরগাঁও থানার এসআই জাকির হোসেন জানায়, ঘটনার পর চালকরা পলাতক থাকলেও অটোরিকশা ও লড়িটিকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসা হয়। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.